অস্ট্রিয়া যেতে কত টাকা লাগে ও যাওয়ার উপায় ২০২৪

পশ্চিম ইউরোপের মধ্যে উন্নত এবং পরিছন্ন একটি রাষ্ট্র হচ্ছে অস্ট্রিয়া। হয়তো অনেকে এই দেশটি সম্পর্কে জানে আবার অনেকে জানে না। সাধারণত অন্যান্য দেশগুলোর তুলনায় এই অস্ট্রিয়া অর্থনৈতিক দিক দিয়ে অনেক এগিয়ে আছে। এই অস্ট্রিয়ায় প্রতিনিয়ত বিভিন্ন কারখানা এবং উন্নত মানের কোম্পানি তৈরি হচ্ছে। এইসব কাজের জন্য প্রতি বছর বিভিন্ন দেশে শ্রমিক নিয়োগ দিয়ে থাকে। সেই সার্কুলার অনুযায়ী অনেকে ভিসার জন্য আবেদন করে কিন্তু তাদের অস্ট্রিয়া যেতে কত টাকা লাগে তা জানা থাকে না।

আপনারা হয়তো সবাই জানেন ইউরোপের মধ্যে যতগুলি দেশ রয়েছে প্রায় সব দেশে যেতেই অনেক বেশি টাকা খরচ হয়। তবে অন্যান্য দেশগুলোর তুলনায় সবচাইতে ইউরোপের মধ্যে দেশগুলোতে বেশি টাকা ইনকাম করা যায়। তবে গত বছরের তুলনায় এ বছরে অস্ট্রিয়া যাওয়ার খরচ অনেকটাই বেড়ে গেছে। এজন্য অনেকে জানে না বর্তমান সময়ে অস্ট্রিয়া যেতে কত টাকা লাগে। তাই আজকের পোস্টে সবার সুবিধার্থে অস্ট্রিয়া যেতে কত টাকা লাগে এবং অস্ট্রিয়া যাওয়ার উপায় সহ আরো কিছু তথ্য তুলে ধরবো।

অস্ট্রিয়া যেতে কত টাকা লাগে

মূলত অস্ট্রিয়া যাওয়ার খরচ সম্পূর্ণ আপনার ভিসার ধরনের ওপর নির্ভর করে। কেননা বর্তমান সময়ে অস্ট্রিয়া যাওয়ার জন্য কয়েক ক্যাটাগরির ভিসা পাওয়া যায় আর একেক ভিসার দাম একেক ভাবে নির্ধারণ করা থাকে। সাধারণত আপনারা বাংলাদেশ থেকে কখনোই অস্ট্রিয়ার ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন না। আপনাকে প্রথমে সরাসরি ভারতের দিল্লিতে যেতে হবে এরপর সেখান থেকে অস্ট্রিয়ার ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে কিন্তু সরকারি সার্কুলার ছাড়া অস্ট্রিয়া যেতে অনেক বেশি টাকা খরচ হয়।

এজন্য যখন বছরের শুরুতে অস্ট্রিয়ার সরকার বিভিন্ন কাজের চাহিদা অনুযায়ী শ্রমিক নিয়োগ দিবে তখন আপনারা সার্কুলার অনুযায়ী অস্ট্রিয়ার ভিসার জন্য আবেদন করে রাখতে পারেন। এতে আপনারা খুব অল্প খরচেই অস্ট্রিয়া পৌঁছে যেতে পারবেন। বর্তমান সময়ে যদি আপনি এজেন্সির মাধ্যমে অস্ট্রিয়া যেতে চান তাহলে সব মিলিয়ে ১০ লক্ষ থেকে ১৪ লক্ষ টাকার উপরে খরচ পড়বে। তবে যদি সরকারিভাবে ভিসা পেতে পারেন তাহলে ৫ লক্ষ থেকে ৮ লক্ষ টাকার মধ্যে অস্ট্রিয়া পৌঁছে দিতে পারবেন।

অস্ট্রিয়া কাজের ভিসা

এখন বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায় মানুষ জীবিকা নির্বাহ করার জন্য অস্ট্রিয়া দেশটি বেছে নেয়। কেননা প্রত্যেকটা বাঙালির স্বপ্ন থাকে ইউরোপের মধ্যে কোন একটি দেশে গিয়ে জীবিকা নির্বাহ করবে। বর্তমান সময়ে অস্ট্রিয়া বিভিন্ন ধরনের ভিসায় গিয়ে থাকে কিন্তু অন্যান্য ভিসার চেয়ে চাহিদা সম্পন্ন একটি ভিসা হচ্ছে অস্ট্রিয়া কাজের ভিসা। এখন আপনারা বিভিন্ন ধরনের কাজের ভিসা পেয়ে যাবেন তবে অন্যান্য ভিসার তুলনায় অস্ট্রিয়ার কাজের ভিসার দাম অনেকটাই বেশি।

এজন্য আপনারা প্রতিবছরের সরকারি সার্কুলার জন্য অপেক্ষা করতে পারেন। যদি কোন উপায়ে সরকারি ভাবে অস্ট্রিয়ার কাজের ভিসা পেতে পারেন তাহলে অল্প খরচেই অস্ট্রিয়া কাজের ভিসায় পৌঁছে যেতে পারবেন। এছাড়াও এজেন্সির মাধ্যমেও অস্ট্রিয়া কাজের ভিসা প্রসেসিং করতে পারবেন তবে খরচ অনেক বেশি হবে। বর্তমান সময়ে যদি আপনারা এজেন্সির মাধ্যমে অস্ট্রিয়া কাজের ভিসা প্রসেসিং করতে চান তাহলে ১০ লক্ষ থেকে ১৪ লক্ষ টাকার উপরে খরচ পড়বে।

অস্ট্রিয়া বেতন কত

মূলত অস্ট্রিয়া হচ্ছে ইউরোপের মধ্যে একটি উন্নত রাষ্ট্র যেখানে আপনাদের সবাইকে কাজের ধরন এবং কাজের অভিজ্ঞতার ওপর নির্ভর করে বেতন দিবে। তবে ইউরোপের অন্যান্য দেশগুলোর তুলনায় এই অস্ট্রিয়ায় কাজের বেতন বেশি পাওয়া যায় না। তবে এখন বেশিরভাগ মানুষ ইউরোপের বড় বড় রাষ্ট্রে যাওয়ার জন্য এই অস্ট্রিয়া দেশটিতে গিয়ে থাকে। যারা অস্ট্রিয়ায় কনস্ট্রাকশনের কাজ করবে তাদের বেতন মাসে ৬০ হাজার থেকে ৮০ হাজার টাকা।

যারা অস্ট্রিয়াতে হোটেল বা রেস্টুরেন্টের শ্রমিক হয়ে কাজ করবে তারা মাসে ৫০ হাজার থেকে ৮০ হাজার টাকা পর্যন্ত ইনকাম করতে পারবে। যারা অস্ট্রিয়ায় ড্রাইভিং এর কাজ করবে তারা প্রতি মাসে প্রায় ৯০ হাজার থেকে ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকার উপরে অনায়াসে ইনকাম করতে পারবে। এছাড়াও সবশেষে যারা আইটি সেক্টরে কাজ করবে তারা মাসে ১ লক্ষ থেকে ৪ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করতে পারবে আর অন্যান্য কাজের তুলনায় আইটি সেক্টরের কাজে বেশি বেতন পাওয়া যায়।

আরো পড়ুনঃ সার্বিয়া বেতন কত ও সর্বনিম্ন বেতন কত

অস্ট্রিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি

বর্তমান সময়ে যারা অস্ট্রিয়া যেতে চাচ্ছে বা যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে তাদের মধ্যে বেশিরভাগ লোক জানতে চায় অস্ট্রিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি। কেননা অস্ট্রিয়ায় যে কাজের চাহিদা রয়েছে সেই কাজের বেতন অনেক বেশি পাওয়া যায়। যারা এই অস্ট্রিয়ায় নতুন শ্রমিক হয়ে কাজের জন্য যেতে চায় তারা অস্ট্রিয়ার বিভিন্ন কাজ সম্পর্কে বিস্তারিত জানার আগ্রহ করে। তাই সবার সুবিধার্থে এখন আপনাদের মাঝে অস্ট্রিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি সেই কাজগুলোর নাম তুলে ধরবো।

  • কনস্ট্রাকশন
  • ইলেকট্রিশিয়ান
  • ড্রাইভিং
  • হোটেল ম্যানেজার
  • ফ্যাক্টরি ওয়ার্কার
  • ক্লিনার ইত্যাদি।

অস্ট্রিয়া যাওয়ার উপায়

আপনারা হয়তোবা এতক্ষণে উপর থেকে জেনে গেছেন অস্ট্রিয়া যেতে কত টাকা লাগে। এখন আপনাদের জানাবো অস্ট্রিয়া যাওয়ার উপায় বা অস্ট্রিয়া কিভাবে যেতে হয়। মূলত বাংলাদেশ থেকে অস্ট্রিয়া যাওয়ার জন্য কোন এজেন্সি নেই। আর বর্তমান সময়ে অস্ট্রিয়ার ভিসা পাওয়া অনেকটাই কঠিন এবং খরচ অনেক বেশি। সেক্ষেত্রে যদি আপনারা অস্ট্রিয়া যেতে চান তাহলে প্রথমে আপনাদের ভারতের দিল্লিতে গিয়ে অস্ট্রিয়ার ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে তাহলেই অস্ট্রিয়া যেতে পারবেন।

শেষ কথাঃ

এখন অনেকে এই ইউরোপের মধ্যে অস্ট্রিয়ায় যেতে চায় কিন্তু দেখা যাচ্ছে তাদের অস্ট্রিয়া যেতে কত টাকা লাগে এবং অস্ট্রিয়া যাওয়ার উপায় জানা থাকে না। তাই সবার সুবিধার্থে আজকের পোস্টে অস্ট্রিয়া যেতে কত টাকা লাগে এবং অস্ট্রিয়া যাওয়ার উপায় সহ আরও কিছু তথ্য তুলে ধরেছি। আশা করি আপনারা সবাই অস্ট্রিয়া যেতে কত টাকা লাগে তা সংক্ষিপ্ত আকারে জানতে পেরেছেন। যদি এই আর্টিকেল আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্টে জানিয়ে যাবেন।

Leave a Comment