ফিজি কাজের বেতন কত ২০২৪

ফিজি হচ্ছে দ্বীপের মধ্যে সুন্দর এবং পরিচ্ছন্ন একটি রাষ্ট্র। যেখানে বাংলাদেশের অনেক শ্রমিক কাজের অভিজ্ঞতা অনুযায়ী ভিসা লাগিয়ে যেতে চায়। তবে অধিকাংশ শ্রমিকদের এই দেশে যাওয়ার অন্যতম একটি কারণ হচ্ছে সেখানে মাসে বেতন হিসেবে বেশি টাকা উত্তোলন করা যায়। এছাড়াও ফিজিতে অল্প পরিশ্রমে মাসে ভালো একটি পরিমাণে টাকা ইনকাম করা যায়। কিন্তু বর্তমান সময়ে যারা ফিজি কাজের জন্য যেতে চাচ্ছে দেখা যাচ্ছে তাদের ফিজি কাজের বেতন কত তা বিস্তারিত জানা থাকে না।

সাধারণভাবে অন্যান্য দেশের মতোই আপনারা ফিজিতে নিজের কাজের অভিজ্ঞতা অনুযায়ী ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন। এখন আপনারা ফিজিতে অনেক ক্যাটাগরির কাজ পেয়ে যাবেন আর সেগুলো কাজের বেতন একেক ভাবে নির্ধারণ করা থাকে। তবে ফিজির অন্যান্য কাজের তুলনায় যেগুলো উন্নতমানের কোম্পানি রয়েছে সেখানে বেতন অনেক বেশি পাওয়া যায়। তাই আজকের পোস্টে সবার সুবিধার্থে ফিজি কাজের বেতন কত এবং ফিজিতে সর্বনিম্ন বেতন কত তা বিস্তারিত উল্লেখ করব।

ফিজি কাজের বেতন

আপনারা হয়তোবা সবাই জানেন প্রায় সব দেশেই কাজের ধরন এবং কাজের অভিজ্ঞতার উপর নির্ভর করে বেতন দেয়। তবে অন্যান্য দেশগুলোর তুলনায় এই ফিজিতে আপনারা অনেক বেশি টাকা ইনকাম করতে পারবেন। সাধারণভাবে এদেশে নতুন করে বিভিন্ন ধরনের কারখানা এবং কোম্পানি তৈরি হচ্ছে। সেখানে তখন প্রচুর কাজের শ্রমিকের প্রয়োজন হয় আর আপনারা সবাই জানেন যে কাজের চাহিদা থাকে সেই কাজের বেতন অনেক বেশি পাওয়া যায়।

তবে অধিকাংশ ক্ষেত্রে দেখা যায় বেশিরভাগ মানুষের ফিজি কাজের বেতন কত তা জানা থাকে না। সাধারণত সেখানে আপনাদের কাজের ধরন অনুযায়ী বেতন দিবে। মূলত ফিজিতে আপনারা নতুন অবস্থায় মাসে ৩৫ হাজার থেকে ৫০ হাজার টাকা অনায়াসে ইনকাম করতে পারবেন। এছাড়াও যদি আপনাদের কাজের ধরন অনেক ভালো হয় যেমন কনস্ট্রাকশন বা ইলেকট্রিশিয়ান এইসব কাজ হয় তাহলে মাসে ৬০ হাজার থেকে ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত অনায়াসে ইনকাম করতে পারবেন।

ফিজি কোন কাজের চাহিদা বেশি

এখন অনেকে ফিজিতে বিভিন্ন কাজের জন্য যেতে চায় আর এজন্য অধিকাংশ মানুষ ফিজি কোন কাজের চাহিদা বেশি তা জানতে চায়। কেননা আপনারা হয়তো সবাই জানেন ফিজি অথবা অন্যান্য যেকোনো দেশ হোক না কেন যে কাজের চাহিদা থাকে সে কাজের বেতন অনেক বেশি পাওয়া যায়। সাধারণত ফিজি হচ্ছে একটি দ্বীপের রাষ্ট্র যেখানে মাছ ধরার কাজ বেশি পাওয়া যায়। এছাড়াও আরো অন্যান্য উন্নত মানের কাজও পাওয়া যায়। এবার চলুন তাহলে ফিজি কোন কাজের চাহিদা বেশি তা জেনে নেওয়া যাক।

  • কনস্ট্রাকশন
  • ইলেকট্রিশিয়ান
  • ড্রাইভিং
  • কৃষিকাজ
  • গার্মেন্টস
  • প্রিন্টিং
  • ক্লিনার ইত্যাদি।

ফিজিতে সর্বনিম্ন বেতন কত

ফিজি হচ্ছে অন্যান্য দেশগুলোর তুলনায় কাজের দিক দিয়ে অন্যরকম। এখন অনেকে সরকারি এবং বেসরকারিভাবে ফিজিতে জীবিকা নির্বাহ করার জন্য ভিসার জন্য আবেদন করে থাকে। এজন্য অনেকে ফিজির ভিসা হাতে পাওয়ার পর ফিজি কাজের বেতন এবং ফিজিতে সর্বনিম্ন বেতন কত তা জানার আগ্রহ করে। সাধারণভাবে অন্যান্য দেশগুলোর মত আপনাদের কাজের ধরন এবং কাজের অভিজ্ঞতার ওপর নির্ভর করে বেতন দিবে।

সেক্ষেত্রে যদি আপনাদের কাজের অভিজ্ঞতা ভালো থাকে তাহলে মাসে অনেক টাকা উত্তোলন করতে পারবেন। সাধারণত এখন ফিজিতে সর্বনিম্ন বেতন হচ্ছে ৩০ হাজার থেকে ৪০ হাজার টাকা। যদি নতুন অবস্থায় আপনাদের কাজের ধরন এবং কাজের অভিজ্ঞতা থাকে তাহলে মাসে ৫০ হাজার থেকে ৬০ হাজার টাকা পর্যন্ত অনায়াসে ইনকাম করতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ সাইপ্রাস বেতন কত ও সর্বনিম্ন বেতন কত

ফিজি যেতে কত টাকা লাগে

সাধারণত আপনাদের ভিসার ক্যাটাগরির ওপর নির্ভর করে যে ফিজি যেতে কত টাকা লাগবে। বর্তমান সময়ে আপনারা ফিজি যাওয়ার জন্য কয়েক ধরনের ভিসা পেয়ে যাবেন। তবে ফিজির অন্যান্য ভিসার তুলনায় ফিজি কাজের ভিসা এবং ওয়ার্ক পারমিট ভিসার দাম ও চাহিদা অনেক বেশি। সেক্ষেত্রে যখন ফিজি বিভিন্ন কাজের চাহিদা অনুযায়ী সরকারি সার্কুলার প্রকাশ করবে তখন আপনারা অল্প খরচে ভিসার জন্য আবেদন করতে পারেন।

এছাড়াও এজেন্সির মাধ্যমেও যেতে পারবেন তবে খরচ আপনাদের অনেক বেশি হবে। সাধারণভাবে যদি আপনারা ফিজি স্টুডেন্ট ভিসা অথবা টুরিস্ট ভিসায় যেতে চান তাহলে ৩ লক্ষ থেকে ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত সব মিলিয়ে খরচ পড়বে। এছাড়াও যদি ফিজিতে কাজের জন্য অর্থাৎ ফিজি কাজের ভিসা অথবা ওয়ার্ক পারমিট ভিসায় যেতে চান তাহলে ৬ লক্ষ থেকে ৭ লক্ষ টাকা খরচ পড়বে। সেক্ষেত্রে এজেন্সি ভেদে ভিসা খরচ কম বেশি হতে পারে।

ফিজি ভিসা পাওয়ার উপায়

বর্তমান সময়ে অনেক শ্রমিক আছে যাদের জানা নেই কিভাবে তারা ফিজি কাজের ভিসা বা অন্যান্য ভিসা পাবে। সাধারণত আপনারা কয়েকটি উপায়ে ফিজির ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন। যদি সরকারি সার্কুলার অনুযায়ী ভিসার জন্য আবেদন করতে পারেন তাহলে ভিসা খরচ অনেক কম পড়বে।

এছাড়াও আপনারা কোন এজেন্সির সাথে কথা বলেও ফিজির ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন তবে খরচ অনেকটাই বেশি হবে। কিন্তু যদি আপনাদের ফিজিতে কোন পরিচিত কাছের লোক থাকে তাহলে তাদের সাহায্য নিয়ে এজেন্সির মাধ্যমে খুব অল্প টাকায় ফ্রিজের ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন।

শেষ কথাঃ

এখন অনেকে এই ফিজিতে বিভিন্ন কাজের জন্য যেতে চায় কিন্তু অধিকাংশ ক্ষেত্রে দেখা যায় ফিজি কাজের বেতন কত এবং সর্বনিম্ন বেতন কত তা বিস্তারিতভাবে জানা থাকে না। তাই সবার সুবিধার্থে আজকের পোস্টে ফিজি কাজের বেতন কত এবং আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য তুলে ধরেছি। আশা করি আপনারা সবাই ফিজি কাজের বেতন কত এবং ফিজি সম্পর্কে আরো কিছু তথ্য জানতে পেরেছেন। এছাড়াও যদি এইরকম আরো নতুন কোন তথ্য পেতে চান তাহলে আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকুন।

Leave a Comment