সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন বেশি ও কাজের বেতন কত ২০২৪

সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন বেশি ও সৌদি আরবের বেতন কত সে বিষয়ে জানতে চাইলে আমাদের সাথে থাকুন। বাংলাদেশ থেকে প্রতিনিয়ত এবং প্রতিবছর অনেক মানুষ সৌদি আরবে কাজের উদ্দেশ্যে যাচ্ছে। আর বাংলাদেশ থেকে সৌদি আরবে প্রচুর পরিমাণে প্রতিবছর শ্রমিক নেওয়া হয়। বেশিরভাগ মানুষ সৌদি আরবে ড্রাইভিং ভিসা, ক্লিনার ভিসা এবং কোম্পানি ভিসায় যায়।

তবে অনেক মানুষ জানে না সৌদি আরবে কোন কাজের কিরকম বেতন এবং সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন বেশি। তাই বেতন সম্পর্কে জানার জন্য অনেকে ইন্টারনেটে খোঁজাখুঁজি করে থাকে। তাই আজকের এই পোষ্টে আপনাদের মাঝে তুলে ধরবো সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন বেশি। বাংলাদেশের অনেক মানুষ আছে যারা জানে না সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন বেশি।

যারা ইন্টারনেটে সৌদি আরবের বেতন নিয়ে অনুসন্ধান করে তাদের সুবিধার্থে আজকের এই আর্টিকেলটি সাজানো হয়েছে। আর আপনারা এই পোষ্টে  জানতে পারবেন সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন বেশি। দেরি না করে চলুন তাহলে দেখে নেওয়া যাক সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন বেশি ও সৌদি আরবের বেতন কত।

সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি

বর্তমানে আমাদের বাংলাদেশ থেকে অনেক মানুষ সৌদি আরবে কাজের ভিসায় যাচ্ছে। একেক জন একেক কাজের ভিসায় যায়। বাংলাদেশের বেশিরভাগ মানুষ এখন বিদেশ বা প্রবাসে কাজ করার জন্য সৌদি আরব কে বেছে নেয়। সৌদি আরবে অনেক রকম কাজ রয়েছে তবে কিছু কিছু কাজ আছে যেগুলোর চাহিদা অনেক বেশি। আবার অনেক লোক আছে যারা জানেনা সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বর্তমানে বেশি রয়েছে। এখন আমরা জানবো সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি তা নিচে উল্লেখ করা হলো।

  • রাজমিস্ত্রি
  • রড মিস্ত্রি
  • লেবার
  • অটোমোবাইল
  • ইলেকট্রনিক
  • কনস্ট্রাকশন
  • পাইপ ফিটার ইত্যাদি।

সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন বেশি

অনেক রকমের কাজ রয়েছে সৌদি আরবে তার মধ্যে থেকে বেশিরভাগ জনপ্রিয় সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, অফিস ম্যানেজার আরো অনেক রয়েছে। যারা এইরকম কাজে যেতে চাচ্ছে তাদের মনে একটা প্রশ্ন জাগতে পারে এই সব কাজের বেতন কি রকম হতে পারে। বর্তমানে এসব কাজের বেতন অনেক বেশি। আপনারা এখন জানতে পারবেন সৌদি আরবের যে কাজগুলোর বেতন বেশি সেগুলো আমেরিকান ডলারে দেখতে পাবেন। সবার সুবিধার্থে সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন বেশি নিজে উল্লেখ করে দেওয়া হলো।

  • গ্রাহক সেবা — 38,758 ডলার পেয়ে থাকে।
  • সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং — 32,505 ডলার পেয়ে থাকে।
  • অফিস ম্যানেজার — 31,204 ডলার পেয়ে থাকে।
  • মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার — 30,743 ডলার পেয়ে থাকে।
  • নির্বাহী সহকারি — 25,904 ডলার পেয়ে থাকে।
  • ফার্মাসিস্ট — 20,527 ডলার পেয়ে থাকে।
  • হিসাবরক্ষক — 17,957 ডলার পেয়ে থাকে।
  • রিসেপশনিস্ট — 15,051 ডলার পেয়ে থাকে।
  • ওয়েটার –14,362 ডলার পেয়ে থাকে।

আরো পড়ুনঃ সৌদি আরব রেস্টুরেন্ট ভিসা ও বেতন কত

সৌদি আরবের বেতন কত

যদি সৌদি আরবের বেতন সম্পর্কে বলি তাহলে শিক্ষাগত যোগ্যতা, পেশাগত অভিজ্ঞতা, কাজের ধরণ, প্রতিষ্ঠানের ধরণ এবং অন্যান্য তথ্যের উপর ভিত্তি করে বেতন নির্ধারণ করা হয়। সাধারণত সৌদি আরবে বিভিন্ন কোম্পানিতে বেতন সৌদি রিয়েল দিয়ে থাকে। এছাড়াও সরকারি ও বেসরকারি সেক্টরে বেতনের তথ্য দেওয়া থাকে তবে পরবর্তীতে সেই তথ্যের সাথে পরিবর্তন হতে পারে। সৌদি আরবের কিছু কাজের বেতন সম্পর্কে নিচে উল্লেখ করা হলো। চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক সৌদি আরবের বেতন কত বা কি রকম হতে পারে।

  • ইঞ্জিনিয়ার (Engineer) – সৌদি আরবে ইঞ্জিনিয়ারদের মাসিক বেতন হচ্ছে  ৫ হাজার থেকে ১০ হাজার রিয়াল পর্যন্ত
  • হেলথকেয়ার পেশাগত (Healthcare Professional) – বর্তমানে সৌদি আরবের ডাক্তার, নার্স  ও ফার্মেসিস্ট হিসাবে পেশায় যারা যুক্ত আছেন তাদের বেতন হচ্ছে ৫০০০ থেকে ১৫০০০ রিয়াল পর্যন্ত হয়।
  • মেডিয়া (Media) – সৌদি আরবের জার্নালিস্ট, ফটোগ্রাফার ইত্যাদি এদের বেতন প্রায় ৩০০০ থেকে ৮০০০ রিয়াল পর্যন্ত হয়।
  • পেট্রোলিয়াম উদ্যোক্তা (Oil Industry Worker) – সৌদি আরবের পেট্রোলিয়াম কোম্পানি গুলির পেশাদার ওয়ার্কারদের মাসিক বেতন ৩০০০ থেকে ৭০০০ রিয়াল পর্যন্ত দেওয়া হয়।
  • ইলেকট্রিশিয়ান (Electrician) – বর্তমানে সৌদি আরবের ইলেকট্রিশিয়ানদের বেতন হচ্ছে ২০০০ থেকে ৫০০০ রিয়াল পর্যন্ত হয়।

শেষ কথাঃ

আজকের পোষ্টে সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন বেশি ও সৌদি আরবের বেতন কত সে বিষয়ে আপনাদের জানানোর চেষ্টা করেছি। আশা করি আপনারা সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন বেশি ও সৌদি আরবের বেতন কত সে বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য জানতে পেরেছেন। যদি আজকের এই আর্টিকেলটি আপনাদের কাছে ভালো লেগে থাকে তাহলে বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করে দিন। এছাড়াও এরকম আরো নতুন নতুন তথ্য পেতে আমাদের ওয়েবসাইটের সাথেই থাকুন।

Leave a Comment