বুলগেরিয়া কাজের ভিসা ও কাজের বেতন কত ২০২৪

দক্ষিণ পূর্ব ইউরোপ মহাদেশের মধ্যে আরেকটি সুন্দর ও উন্নত অবস্থিত রাষ্ট্র হচ্ছে বুলগেরিয়া। বাংলাদেশের প্রত্যেকটা মানুষের স্বপ্ন কোন একদিন ইউরোপের মধ্যে যেকোনো একটি দেশে কাজের উদ্দেশ্যে যাবে। তবে অন্যান্য দেশের মতো এই বুলগেরিয়া দেশেও যাওয়া অনেক কঠিন। কারণ আপনি সার্কুলার ছাড়া কখনোই যেকোনো কাজের জন্য বুলগেরিয়া ভিসা পাবেন না। আপনারা যারা বুলগেরিয়া কাজের উদ্দেশ্যে যেতে চাচ্ছেন তাদের অবশ্যই বুলগেরিয়া কাজের ভিসা থাকতে হবে।

এছাড়াও আপনারা বুলগেরিয়া কাজের ভিসা তৈরি করার জন্য বাংলাদেশের কোন এজেন্সির মাধ্যমে আবেদন করতে পারেন। তবে বুলগেরিয়া কাজের ভিসা আবেদন করতে চাইলে বুলগেরিয়ার সরকারি সার্কুলার এর জন্য অপেক্ষা করতে হবে। এছাড়াও বুলগেরিয়া থেকে প্রতি বছরই বিভিন্ন ধরনের কাজের জন্য বিভিন্ন দেশ থেকে শ্রমিক নিয়োগ দিয়ে থাকে। বুলগেরিয়ায় সবচেয়ে কাজের ভিসা এবং গার্মেন্টস ভিসার জন্য অধিকাংশ শ্রমিক নিয়ে থাকে।

আর আপনারা তাদের সার্কুলার অনুযায়ী অনলাইনের মাধ্যমে বুলগেরিয়া ভিসার জন্য আবেদন করতে পারেন। আবার অনেকে বুলগেরিয়া কাজের ভিসা খরচ এবং বুলগেরিয়া যেতে কত টাকা লাগে সে বিষয়ে বিস্তারিত জানার জন্য অনলাইনে অনুসন্ধান করে। তাই আজকের পোস্টে বুলগেরিয়া কাজের ভিসা খরচ এবং বুলগেরিয়া যেতে কত টাকা লাগে সহ বুলগেরিয়া সম্পর্কে আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য আপনাদের মাঝে তুলে ধরবো।

বুলগেরিয়া কাজের ভিসা

বাংলাদেশের হাজারো মানুষ আছে যারা বুলগেরিয়া কাজের উদ্দেশ্যে যেতে চাচ্ছে কিন্তু তাদের বুলগেরিয়া কাজের ভিসা এবং ভিসার খরচ সম্পর্কে ধারণা নেই। বাংলাদেশী নাগরিক অনেকে আছে যারা বুলগেরিয়া বহুদিন ধরে বিভিন্ন ধরনের কাজ করে যাচ্ছে। এছাড়াও প্রতি বছরই বুলগেরিয়া থেকে বিভিন্ন ধরনের কাজের জন্য শ্রমিক নিয়োগ দিয়ে থাকে। তবে বর্তমানে বুলগেরিয়া যাওয়া অনেক কঠিন একটা বিষয়।

যখন বুলগেরিয়া থেকে বিভিন্ন কাজের জন্য সার্কুলার দিবে তখন আপনারা অনলাইনের মাধ্যমে ভিসার জন্য আবেদন করে রাখতে পারেন। এরপর পরবর্তীতে আপনাদের লেটার অথবা মেসেজের মাধ্যমে জানিয়ে দিবে। তারপর আপনারা বাংলাদেশের কোন এজেন্সির সাহায্য নিয়ে ভিসা করে নিতে পারবেন। বর্তমানে এজেন্সির মাধ্যমে বুলগেরিয়া কাজের ভিসা করতে চাইলে ৬ লক্ষ থেকে ৭ লক্ষ টাকা পর্যন্ত খরচ পড়বে।

বুলগেরিয়া গার্মেন্টস ভিসা

বুলগেরিয়া থেকে প্রতি বছর এই গার্মেন্টসের শ্রমিক নিয়োগ দেওয়া হয় কারণ গার্মেন্টস এর কাজের চাহিদা অনুযায়ী শ্রমিকের সংখ্যা অনেক কম। এজন্য প্রতিবছর এই বুলগেরিয়া সরকার সার্কুলার দিয়ে থাকে। আর বর্তমান অনলাইন যুগে আপনি খুব সহজেই অনলাইনে থেকে বুলগেরিয়া গার্মেন্টস ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন।

এছাড়াও আপনারা চাইলে খুব সহজে বাংলাদেশের কোন এজেন্সির মাধ্যমে বুলগেরিয়া গার্মেন্ট ভিসার জন্য আবেদন করতে পারেন। বর্তমানে আপনারা যদি বুলগেড়িয়া গার্মেন্টস ভিসা করতে চান তাহলে আপনি ৪ লক্ষ থেকে ৫ লক্ষ টাকার মধ্যেই ভিসা করে নিতে পারবেন। এছাড়াও কোন এজেন্সির মাধ্যমে যদি বুলগেরিয়া গার্মেন্টস ভিসা করতে চান তাহলে ৫ লক্ষ্য থেকে ৭ লক্ষ টাকা পর্যন্ত খরচ পড়বে।

আরো পড়ুনঃ ইতালি ভিসা আবেদন লিংক ও ইতালি ভিসা খরচ কত

বুলগেরিয়া থেকে ইতালি

বাংলাদেশের কিছু কিছু মানুষ আছে যারা ইতালি প্রবেশ করার জন্য প্রথমে বুলগেড়িয়া কোন উদ্দেশ্যে প্রবেশ করে। তবে অধিকাংশ মানুষই বুলগেরিয়া থেকে জীবনের রিক্স নিয়ে ইতালি যাচ্ছে। তবে অবৈধভাবে বুলগেরিয়া থেকে ইতালি যাওয়া একদম ঠিক না কারণ ইতালির আইন অনেক কঠোর। যার কারণে যদি একবার ধরা পড়েন তাহলে কঠিন সাজার শিকার হতে হবে। বুলগেরিয়া থেকে ইতালি যাওয়া খুব সহজ তবে আপনাকে বৈধভাবে ইতালি প্রবেশ করতে হবে।

বুলগেরিয়া কি সেনজেন

বর্তমানে যারা বুলগেরিয়া যেতে চাচ্ছে তাদের মধ্যে অধিকাংশ লোকের মনে প্রশ্ন জাগতে পারে বুলগেরিয়া কি সেনজেন অন্তর্ভুক্ত কি-না। ইউরোপের মধ্যে ২৭ একটি সেনজেন দেশ রয়েছে আর তার মধ্যে বুলগেরিয়াও এই দেশের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত। তাছাড়াও বুলগেরিয়া দেশকে সেনজেন বলা হয়। বর্তমানে আপনারা কোন এজেন্সির মাধ্যমে বুলগেরিয়া ভিসা তৈরি করে খুব সহজে সেনজেন দেশে পৌঁছে যেতে পারবেন।

বুলগেরিয়া বেতন কত

বাংলাদেশ থেকে যারা বুলগেরিয়া কাজের উদ্দেশ্যে যেতে চাচ্ছে তাদের মধ্যে অধিকাংশ লোকের বুলগেরিয়া বেতন কত সে বিষয়ে জানা নেই। এজন্য অধিকাংশ লোক বুলগেরিয়া বেতন কত তা জানার জন্য অনলাইনে অনুসন্ধান করে। তাই এখন আপনাদের জানাবো বুলগেরিয়া বেতন কত বা কি রকম হতে পারে।

বর্তমানে আপনি যদি নতুন অবস্থায় বুলগেরিয়া কাজের উদ্দেশ্যে যান তাহলে আপনার সর্বনিম্ন বেতন ৪০ হাজার থেকে ৬০ হাজার টাকা পর্যন্ত। এছাড়াও আপনার যদি কাজের ওপর অভিজ্ঞতা থাকে তাহলে প্রতি মাসে ৭০ হাজার থেকে ৮০ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতন খুব সহজেই পেয়ে যাবেন। যদি আপনার কাজের অভিজ্ঞতা ভালো থাকে তাহলে প্রতি মাসে আরো বেশি টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

বুলগেরিয়া যেতে কত টাকা লাগে

বাংলাদেশের হাজারো মানুষ রয়েছে যারা বুলগেরিয়া কাজের উদ্দেশ্যে যেতে চাচ্ছে কিন্তু বুলগেরিয়া যেতে কত টাকা লাগে সে বিষয়ে তাদের ধারণা নেই। আপনার ভিসার ক্যাটাগরি অনুযায়ী সম্পূর্ণ নির্ভর করে বুলগেরিয়া যেতে কত টাকা লাগবে কারণ একেক ভিসার দাম একেক রকম ভাবে নির্ধারণ করা থাকে। এছাড়াও আপনারা যদি বুলগেরিয়া কাজের ভিসা অথবা গার্মেন্টস ভিসায় যেতে চান তাহলে অন্যান্য ভিসার চেয়ে খরচ একটু বেশি পড়বে।

তবে আপনারা যদি বুলগেরিয়া কাজের ভিসা অথবা গার্মেন্টস ভিসা সরকারিভাবে পেয়ে থাকেন তাহলে ৩ লক্ষ থেকে ৪ লক্ষ টাকার মধ্যে বুলগেরিয়া পৌঁছে যেতে পারবেন। এছাড়াও আপনারা যদি বাংলাদেশের কোন এজেন্সির মাধ্যমে স্টুডেন্ট ভিসা অথবা টুরিস্ট ভিসায় বুলগেরিয়া যেতে চান তাহলে আপনার ৩ লক্ষ থেকে ৭ লক্ষ টাকা পর্যন্ত খরচ পড়বে। কিন্তু আপনারা সবসময় সরকারিভাবে ভিসা তৈরি করার চেষ্টা করবেন।

শেষ কথাঃ

আজকের পোস্টে বুলগেরিয়া কাজের ভিসা খরচ এবং বুলগেরিয়া যেতে কত টাকা লাগে সে বিষয়ে সহ আরো কিছু তথ্য আপনাদের জানানোর চেষ্টা করেছি। আশা করি আপনারা বুলগেরিয়া কাজের ভিসা খরচ এবং বুলগেরিয়া যেতে কত টাকা লাগে সে বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। যদি আজকের এই আর্টিকেলটি আপনাদের কাছে ভালো লেগে থাকে তাহলে বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করে দিন। এছাড়াও এরকম আরো নতুন কিছু তথ্য পেতে আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকুন।

Leave a Comment