মালয়েশিয়া কাজের বেতন কত ও কোন ভিসা ভালো ২০২৪

দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার সুন্দর ও উন্নত একটি দেশ হচ্ছে মালয়েশিয়া। অন্যান্য দেশের তুলনায় এই মালয়েশিয়া এ দেশটি অনেক উন্নত আর এজন্য মালয়েশিয়া সব ধরনের কাজে প্রযুক্তি বা যন্ত্রের অনেক সুযোগ-সুবিধা পাওয়া যায়। এছাড়াও মালয়েশিয়ায় সব কাজেই পরিশ্রম অনেক কম এবং প্রতি মাসের পারিশ্রমিক অনেক বেশি। এজন্য বাংলাদেশের হাজারো মানুষ রয়েছে যারা মালয়েশিয়ায় বিভিন্ন কাজের জন্য যেতে চায়। আবার অনেকে জানতে চায় মালয়েশিয়া বন্ধু নাকি চালু? হ্যাঁ কয়েক মাস ধরে চালু হয়েছে।

মূলত করোনা ভাইরাসের কারণে মালয়েশিয়ার ভিসা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল তবে কয়েক মাস ধরে মালয়েশিয়া ভিসা চালু করে দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে মালয়েশিয়ায় কয়েকটি ক্যাটাগরির কাজের ভিসা পেয়ে যাবেন। আর একেক ভিসার কাজের বেতন একেক রকম ভাবে নির্ধারণ করা থাকে। তবে যদি কাজের অভিজ্ঞতা থাকলে মাসে অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন। তাই আজকের পোস্টে মালয়েশিয়া কাজের বেতন কত এবং মালেশিয়ার আরো অন্যান্য কাজের বেতন সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরবো।

মালয়েশিয়া কাজের বেতন কত

যারা মালয়েশিয়া বিভিন্ন ভিসায় কাজের জন্য যেতে চাচ্ছে তাদের মধ্যে অধিকাংশ মানুষ মালয়েশিয়া কাজের বেতন কত এবং আরো অন্যান্য কাজের বেতন সম্পর্কে জানতে চায়। মূলত অন্যান্য দেশের তুলনায় মালয়েশিয়া দেশ অনেক উন্নত এজন্য সব কাজেরই মান অনেক বেশি। বর্তমানে মালয়েশিয়ায় প্রচুর কাজের চাহিদা রয়েছে আর কাজের চাহিদা অনুযায়ী শ্রমিকদের সংখ্যা অনেক কম থাকায় মালয়েশিয়া সরকার বাংলাদেশ সহ আরো অন্যান্য দেশে শ্রমিক নিয়োগ দিয়ে থাকে।

তখন সরকারিভাবে অল্প খরচে মালয়েশিয়ার ভিসা করে নিতে পারেন। তবে যাওয়ার পূর্বে মালেশিয়ার কাজের বেতন কত অর্থাৎ মালয়েশিয়ার বিভিন্ন কাজের বেতন সম্পর্কে জেনে নিতে হবে। কারণ কয়েকটি ক্যাটাগরির কাজ রয়েছে আর একেক কাজের বেতন একের রকম ভাবে নির্ধারণ থাকে। সাধারণত মালয়েশিয়া কাজের সর্বনিম্ন বেতন ৩৫ হাজার থেকে ১ লক্ষ টাকার উপরে হয়ে থাকে। তবে কাজের অভিজ্ঞতা থাকলে মাসে ৮০ হাজার থেকে ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

মালয়েশিয়া কোম্পানি ভিসা বেতন কত

বর্তমানে অন্যান্য ভিসার তুলনায় মালয়েশিয়ার কোম্পানির ভিসার চাহিদা অনেক বেশি। এছাড়াও প্রত্যেকটা মানুষই এখন মালয়েশিয়ার কোম্পানি ভিসার জন্য আবেদন করে থাকে কারণ মালয়েশিয়ার কোম্পানির ভিসায় অনেক সুযোগ-সুবিধা পাওয়া যায় এবং অন্যান্য ভিসার তুলনায় বেতনও অনেক বেশি। এছাড়াও কোম্পানির কাজে থাকা এবং খাওয়া একদম ফ্রি পাওয়া যায়।

তবে কোম্পানির ক্যাটাগরির উপর বেতন কম অথবা বেশি হয়ে থাকে। বর্তমানে যদি নতুন অবস্থায় মালেশিয়া কোম্পানি ভিসায় কাজ শুরু করেন তাহলে ৩৫ হাজার থেকে ৬০ হাজার টাকার উপরে বেতন পেয়ে যাবেন। এছাড়াও যদি ওভারটাইম এবং কাজের অভিজ্ঞতা থাকে তাহলে প্রত্যেক মাসে ৪৫ হাজার থেকে ৭৫ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতন পেয়ে যাবেন।

মালয়েশিয়া ড্রাইভিং ভিসা বেতন কত

বাংলাদেশের হাজারো ড্রাইভার রয়েছে যারা মালয়েশিয়া ড্রাইভিং ভিসায় কাজের জন্য যেতে চাচ্ছে কিন্তু তাদের মালেশিয়ার ড্রাইভিং ভিসা বেতন কত টাকা বা বেতন কেমন তা জানা নেই। সাধারণত অন্যান্য ভিসার তুলনায় মালয়েশিয়ার ড্রাইভিং ভিসায় অনেক সুযোগ সুবিধা পাওয়া যায় এবং মালয়েশিয়ার ড্রাইভিং কাজে প্রতি মাসে অনেক টাকা ইনকাম করা যায়।

মালয়েশিয়ায় বিভিন্ন বড় বড় কোম্পানিতে যেগুলো গাড়ি ব্যবহার করে সেগুলো কোম্পানির ড্রাইভার হিসেবে যদি যেতে পারেন তাহলে প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারবেন। তারপর আপনারা রাইড শেয়ার করেও অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন। বর্তমানে মালয়েশিয়ায় ড্রাইভিং কাজের বেতন প্রতিমাসে ৭০ হাজার থেকে ৯০ হাজার টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে।

মালয়েশিয়া রেস্টুরেন্ট ভিসা বেতন কত

মালয়েশিয়া থেকে প্রত্যেক বছরেই বিভিন্ন বড় বড় রেস্টুরেন্ট কোম্পানি থেকে শ্রমিক নিয়োগ দিয়ে থাকে। সেখানে সেফের কাজ এবং আরো কিছু কাজ রয়েছে যেগুলো কাজের চাহিদা অনুযায়ী শ্রমিকদের সংখ্যা কম থাকায় অনলাইনে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে থাকে। তখন আপনারা চাইলে এজেন্সির মাধ্যমে সরকারি ভাবে অল্প খরচে মালয়েশিয়া রেস্টুরেন্ট ভিসা করে নিতে পারবেন।

যদি রেস্টুরেন্ট ভিসায় কাজের জন্য যেতে পারেন তাহলে প্রতি মাসে প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারবেন যেমন কোম্পানির বেতন এবং অনেকে রান্না ভালো হলে ওয়েটার দের টিপস হিসেবেও আলাদা টাকা দিয়ে থাকে। আপনার কাজের ক্যাটাগরি এবং কাজের অভিজ্ঞতা অনুযায়ী প্রতিমাসে ৫০ হাজার থেকে ৮০ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতন পেয়ে যাবেন।

মালয়েশিয়া রাজমিস্ত্রি বেতন কত

বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে হাজারো মানুষ রয়েছে যারা মালয়েশিয়া রাজমিস্ত্রি কাজে যেতে চায়। এছাড়াও মালয়েশিয়ায় নতুন নতুন কোম্পানির আধুনিক ডিজাইনে বিল্ডিং তৈরি হচ্ছে। আর সেখানে কাজের চাহিদা অনুযায়ী শ্রমিকদের সংখ্যা অনেক কম। যদি আপনাদের রাজমিস্ত্রির কাজের ওপর ভালো অভিজ্ঞতা থাকে তাহলে প্রতিমাসে অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন এবং সরাসরি ভাবে ইনকাম করতে পারবেন।

এছাড়া যদি আপনার কাজের ধরন অনেক ভালো হয় তাহলে আরো বেশি টাকা ইনকাম করতে পারবেন এবং অন্যান্য কাজের তুলনায় মালয়েশিয়া রাজমিস্ত্রি কাজে ওভারটাইম করলে অনেক টাকা পাওয়া যায়। বর্তমানে মালয়েশিয়া রাজমিস্ত্রি কাজের বেতন ওভারটাইমসহ প্রতি মাসে ৭০ হাজার থেকে ৮০ হাজার টাকা পর্যন্ত কিন্তু যদি ভালো কোন পদে যেতে পারেন তাহলে ১ লক্ষ টাকার উপরে ইনকাম করতে পারবেন।

মালয়েশিয়া ফ্যাক্টরি ভিসা বেতন কত

প্রত্যেক বছরেই মালয়েশিয়ার বিভিন্ন বড় বড় ফ্যাক্টরি থেকে বিভিন্ন কাজের জন্য শ্রমিক নিয়োগ দিয়ে থাকে। তবে মালয়েশিয়া ফ্যাক্টরি ভিসায় কাজে যাওয়ার আগে অবশ্যই মালেশিয়া ফ্যাক্টরি ভিসা বেতন সম্পর্কে জেনে নিতে হবে। বর্তমানে মালয়েশিয়া ফ্যাক্টরি ভিসা শ্রমিকদের বেতন ১৮০০ রিংগিত থেকে ২৪০০ রিংগিত পর্যন্ত কিন্তু যদি ওভারটাইম করতে পারেন তাহলে ৩০০০ রিংগিত থেকে ৩২০০ রিংগিত পর্যন্ত বেতন পেয়ে যাবেন। যা বাংলাদেশী টাকা হিসেব করলে বেতন ৭০ হাজার থেকে ৮০ হাজার টাকা।

মালয়েশিয়া ইলেকট্রিক কাজের বেতন কত

বাংলাদেশ থেকে অনেকেই মালয়েশিয়া ইলেকট্রিক কাজের জন্য যেতে চাচ্ছে কিন্তু তাদের মালয়েশিয়ায় ইলেকট্রিক কাজের বেতন কত তা জানা নেই। মালয়েশিয়ার অন্যান্য কাজের থেকে ইলেকট্রিক কাজের বেতন অনেক বেশি দিয়ে থাকে। এছাড়া প্রত্যেক বছরেই মালয়েশিয়ার সরকার ইলেকট্রিশিয়ান কাজের প্রচুর শ্রমিক নিয়োগ দিচ্ছে। বর্তমানে মালয়েশিয়া ইলেকট্রিক কাজের বেতন ২৫০০ রিংগিত থেকে ৪০০০ রিংগিত পর্যন্ত যা বাংলাদেশী টাকায় হিসেব করলে বেতন ৭০ হাজার থেকে ১ লক্ষ টাকার উপরে।

মালয়েশিয়া কনস্ট্রাকশন কাজের বেতন কত

বাংলাদেশের হাজারো শ্রমিক রয়েছে যারা মালয়েশিয়া ওয়ার্ক পারমিট ভিসায় বিভিন্ন কাজের জন্য যেতে চাচ্ছে। তবে অধিকাংশ মানুষ কনস্ট্রাকশন কাজের জন্য ওয়ার্ক পারমিট ভিসা তৈরি করে। কারণ মালয়েশিয়ার অন্যান্য কাজের তুলনায় সবচেয়ে কনস্ট্রাকশন কাজে বেশি বেতন পাওয়া যায়।

বর্তমানে মালয়েশিয়া কন্সট্রাকশন কাজের বেতন ১৮০০ রিংগিত থেকে ২৫০০ রিংগিত পর্যন্ত। তবে যদি ভালো কাজের অভিজ্ঞতা এবং ওভারটাইম করেন তাহলে বেতন ২০০০ রিংগিত থেকে ২৮০০ রিংগিত পর্যন্ত বেতন পেয়ে যাবেন। যা বাংলাদেশী টাকায় হিসেব করলে বেতন ৭০ হাজার থেকে ১ লক্ষ টাকার উপরে।

আরো পড়ুনঃ মালয়েশিয়া ভিসার দাম কত ও আবেদন করার নিয়ম

মালয়েশিয়া সুপার মার্কেট বেতন কত

বর্তমানে বাংলাদেশের হাজারো মানুষ রয়েছে যারা মালয়েশিয়া সুপারমার্কেট ভিসায় কাজের জন্য যেতে চাচ্ছে কিন্তু তাদের মালয়েশিয়া সুপার মার্কেট বেতন কত তা জানা নেই। বর্তমানে মালয়েশিয়া সুপার মার্কেট মার্কেটের একজন শ্রমিকের বেতন বেসিক ১৮০০ রিংগিত থেকে ২০০০ রিংগিত পর্যন্ত। এছাড়াও যদি আরো ৩ ঘটা থেকে ৪ ঘন্টা ওভারটাইম করতে পারেন তাহলে মাস শেষে বেতন আরো আলাদা ১৮০০ রিঙ্গিত ২০০০ বা রিংগিত পেয়ে যাবেন।

মালয়েশিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি

মালয়েশিয়ার একটি জনপ্রিয় এবং প্রধান কাজ হচ্ছে কৃষি কাজ এবং অন্যান্য দেশের তুলনায় মালয়েশিয়ার সবচেয়ে বেশি পামওয়েল উৎপাদন হয়। এজন্য যখন কাজের চাহিদা অনুযায়ী শ্রমিকদের সংখ্যা অনেক কম থাকে তখন মালয়েশিয়া সরকার কৃষি ভিসায় কাজের জন্য শ্রমিক নিয়োগ দিয়ে থাকে। তবে অন্যান্য কাজের তুলনায় মালয়েশিয়া পাম বাগানের কাজ অনেক কষ্টের হয়ে থাকে কিন্তু মাস শেষে অনেক টাকা বেতন পাওয়া যায়।

এছাড়াও মালয়েশিয়ারও কিছু কাজের চাহিদা রয়েছে যেমন কনস্ট্রাকশন, ইলেকট্রিক্যাল, হোটেল কর্মী, গার্মেন্টস কর্মী এবং ফ্যাক্টরি কাজ ইত্যাদি। বর্তমানে মালয়েশিয়ায় এসব কাজের প্রচুর চাহিদা রয়েছে এবং এসব কাজের বেতন ও অনেক বেশি। যদি এসব কাজের উপর আপনাদের ভালো অভিজ্ঞতা থাকে তাহলে এগুলো কাজের ভিসায় মালয়েশিয়া যেতে পারেন। আশা করি আপনারা তাহলে জানতে পেরেছেন মালয়েশিয়া কোন কাজে চাহিদা বেশি।

মালয়েশিয়া কোন কাজের বেতন বেশি

বর্তমানে যারা বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়া বিভিন্ন কাজের ভিসায় যেতে চাচ্ছে তাদের মধ্যে অধিকাংশ লোক জানতে চায় মালয়েশিয়ায় কোন কাজের বেতন বেশি। বর্তমানে মালয়েশিয়া থেকে কনস্ট্রাকশন, ইলেকট্রিক্যাল, কৃষিকাজ এবং ফ্যাক্টরির কাজ এসব কাজের জন্য মালয়েশিয়া সরকার শ্রমিক নিয়োগ দিয়ে থাকে। এছাড়াও মালয়েশিয়ায় এইসব কাজের ভিসায় মানুষ বেশি গিয়ে থাকে।

কারণ এসব কাজের বেতন অন্যান্য কাজের তুলনায় বেশি দিয়ে থাকে।  অন্যান্য কাজের থেকে মালয়েশিয়ায় ইলেকট্রিক্যাল কাজের বেতন বেশি। বর্তমানে মালয়েশিয়া ইলেকট্রিক্যাল কাজের বেতন ২৫০০ রিংগিত থেকে ৪০০০ হাজার রিঙ্গিত পর্যন্ত। যা বাংলাদেশী টাকায় হিসেব করলে বেতন ৯০ হাজার থেকে ১ লক্ষ টাকার উপরে।

মালয়েশিয়া কোন কাজের বেতন কত

বাংলাদেশ থেকে যারা মালয়েশিয়া বিভিন্ন কাজের জন্য যেতে চাচ্ছে তাদের মধ্যে অনেকেই জানতে চায় মালয়েশিয়া কোন কাজের বেতন কত। মূলত কাজের উপর ভিত্তি করে মালয়েশিয়ায় বেতন দিয়ে থাকে। এছাড়াও যদি আপনার যে কোন কাজের উপর ভালো অভিজ্ঞতা থাকে তাহলে ভালো একটি পরিমাণে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। তাহলে এবার চলুন জেনে নেওয়া যাক মালয়েশিয়া কোন কাজের বেতন কত টাকা।

  • মালয়েশিয়া কনস্ট্রাকশন কাজের বেতন হচ্ছে ৭০ হাজার থেকে ১ লক্ষ টাকা।
  • মালয়েশিয়া ইলেকট্রিক্যাল কাজের বেতন হচ্ছে ৮০ হাজার থেকে ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা।
  • মালয়েশিয়া কোম্পানি ভিসার কাজের বেতন হচ্ছে ৪০ হাজার থেকে ৭০ হাজার টাকা।
  • মালয়েশিয়া রেস্টুরেন্ট ভিসার কাজের বেতন হচ্ছে ৫০ হাজার থেকে ৮০ হাজার টাকা।
  • মালয়েশিয়া ড্রাইভিং ভিসার কাজের বেতন হচ্ছে ৭০ হাজার থেকে ৯০ হাজার টাকা।
  • মালয়েশিয়া রাজমিস্ত্রি কাজের বেতন হচ্ছে ৭০ হাজার থেকে ১ লক্ষ টাকা।
  • মালয়েশিয়া ফ্যাক্টরি ভিসার কাজের বেতন হচ্ছে ৭০ হাজার থেকে ৮০ হাজার টাকা।
  • মালয়েশিয়া সুপার মার্কেট কাজের বেতন হচ্ছে ৪০ হাজার থেকে ৭০ হাজার টাকা।

মালয়েশিয়া কোন ভিসা ভালো

মালয়েশিয়া থেকে প্রত্যেক বছরেই বিভিন্ন কাজের জন্য শ্রমিক নিয়োগ দিয়ে থাকে। মালয়েশিয়ায় যখন বিভিন্ন বড় বড় নির্মাণের কাজ শুরু হয় তখন কাজের চাহিদা অনুযায়ী শ্রমিকদের সংখ্যা অনেক কম থাকে এজন্য মালয়েশিয়া সরকার শ্রমিক নিয়োগ দিয়ে থাকে। যারা মালয়েশিয়া যেতে চাচ্ছে তাদের মধ্যে অনেকেই জানতে চায় মালয়েশিয়া কোন ভিসা ভালো। বর্তমানে মালয়েশিয়া ইলেকট্রিক্যাল কাজের বেতন সবচেয়ে বেশি। সেক্ষেত্রে অবশ্যই মালেশিয়ার ইলেকট্রিক্যাল কাজ বা ইলেকট্রিক্যাল ভিসা ভালো।

শেষ কথাঃ

আজকের পোস্টে মালয়েশিয়া কাজের বেতন কত এবং মালয়েশিয়ার আরো অন্যান্য কাজের বেতন সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানানোর চেষ্টা করেছি। আশা করি আপনারা মালয়েশিয়া কাজের বেতন কত এবং মালয়েশিয়ার যাবতীয় যতগুলি কাজ রয়েছে সব কাজের বেতন সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। যদি আজকের এই আর্টিকেলটি আপনাদের কাছে ভালো লেগে থাকে তাহলে বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করে দিন। এছাড়াও এরকম আরো নতুন কিছু তথ্য পেতে আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকুন।

Leave a Comment