কানাডা জব ভিসা খরচ কত ২০২৪

কানাডা জব ভিসা খরচ কত ও কানাডা সম্পর্কে আরো জানতে চাইলে আমাদের সাথে থাকুন। বর্তমানে উন্নত দেশের মধ্যে কানাডা দেশও রয়েছে। বর্তমানে কানাডায় কাজের চাহিদা তুলনামূলকভাবে অনেক বেশি। এছাড়াও কানাডা দেশ উন্নত হওয়ায় সব রকমের কাজে সুযোগ-সুবিধা পাওয়া যায়। আর এজন্য বেশিরভাগ মানুষ বাংলাদেশ থেকে কানাডা কাজের উদ্দেশ্যে যেতে চায়।

তবে কানাড়া যাওয়ার জন্য অনেক ধরনের ভিসা রয়েছে কিন্তু আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে কানাডা কাজের উদ্দেশ্যে যেতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে কানাডার জব ভিসায় যেতে হবে। কেননা বাংলাদেশ থেকে কাজের উদ্দেশ্যে কানাডা একমাত্র জব ভিসা ছাড়া যাওয়া যায় না। এজন্য আপনাকে প্রথমে কানাডা জব ভিসা খরচ সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিতে হবে।

বর্তমানে অনেকে বাংলাদেশ থেকে কানাডা কাজের উদ্দেশ্যে যেতে চাচ্ছেন কিন্তু কানাডা জব ভিসা খরচ সম্পর্কে ধারণা নেই। তাই অনেকেই কানাডা জব ভিসা খরচ সম্পর্কে ধারণা নেওয়ার জন্য অনলাইনে অনুসন্ধান করে। তাই আজকের পোস্টে আপনাদের মাঝে কানাডা জব ভিসা খরচ কত টাকা এবং কানাডা সম্পর্কে আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ তুলে ধরবো।

কানাডা জব ভিসা খরচ কত

বাংলাদেশের বেশিরভাগ মানুষ কাজের উদ্দেশ্যে কানাডা যেতে চায় কারণ সেখানকার কাজে সব রকমের সুযোগ সুবিধা পাওয়া যায়। আর বর্তমানে বাংলাদেশ সহ বিশ্বের অন্যান্য দেশ থেকে কাজের জন্য প্রচুর পরিমাণে লোক নেওয়া হয় কানাডায়। কানাডায় অনেক ধরনের কাজ রয়েছে যার কারণে কাজের কর্মীদের অনেক অভাব পরে। আর তাই প্রতিবছর কানাডা কাজের উদ্দেশ্যে লোক নিয়োগ দেয়। আর তাই বাংলাদেশের বেশিরভাগ মানুষ কাজের উদ্দেশ্যে কানাডা যেতে চায়।

কিন্তু কানাডা কাজের উদ্দেশ্যে যাওয়ার আগে অবশ্যই বাংলাদেশ থেকে যেকোনো কাজের উপর অভিজ্ঞ হয়ে যাবেন তাহলে খুব অল্প সময়ে স্বাবলম্বী হতে পারবেন। তাই অনেকে আছে যারা কানাডা জব ভিসা খরচ কত হয় সে বিষয়ে জানার জন্য অনলাইন অনুসন্ধান করে। তাই সবার সুবিধার্থে কানাডার জব ভিসার পাওয়ার জন্য কানাডা জব ভিসা খরচ কত হয় তা সংক্ষিপ্ত আকারে নিচে উল্লেখ করে দেওয়া হলো।

  • কানাডা ভিসা আবেদন করার জন্য ১২,৫০৬ টাকা লাগবে।
  • মেডিকেল পরীক্ষা করার জন্য সর্বনিম্ন ২০,০০০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ২৫,০০০ টাকা পর্যন্ত লাগবে।
  • এরপর এলএমআইএ ফি দিতে হবে ৮০,৬৯০ টাকা।
  • এছাড়াও আপনাকে বায়োমেট্রিক ফি দিতে হবে ৭,০০০ টাকা।

কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসায় যেতে কত টাকা লাগে

বর্তমানে বাংলাদেশের বেশিরভাগ মানুষ কাজের উদ্দেশ্যে কানাডা যেতে চায়। কিন্তু তাদের মধ্যে থেকে অনেকেই কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসায় যেতে চাচ্ছে বা যেতে চায়। তবে যারা কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা যেতে চাচ্ছেন তাদের অবশ্যই কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসায় যেতে কত টাকা লাগে সে বিষয়ে ধারণা রাখতে হবে।

আবার অনেকেই আছে যারা কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা যেতে কত টাকা লাগে সে বিষয়ে জানার জন্য অনলাইনে অনুসন্ধান করে। তাই প্রিয় গ্রাহকদের সুবিধার্থে কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসায় যেতে কত টাকা লাগে তা সংক্ষিপ্ত আকারে এখন আপনাদের জানানোর চেষ্টা করব।

সাধারণত কানাড়া ওয়ার্ক পারমিট ভিসায় যেতে চাইলে সর্বনিম্ন ৬ লক্ষ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ১২ লক্ষ টাকার মতো খরচ হবে। এছাড়াও আপনি যদি সরকারিভাবে কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসায় যান তাহলে সর্বনিম্ন ২ লক্ষ টাকা থেকে সর্বোচ্চ তিন লক্ষ টাকার মত খরচ পড়বে। কিন্তু বেসরকারিভাবে কানাডা যেতে চাইলে ভিসা খরচ সহ যাবতীয় অন্যান্য কিছু মিলিয়ে খরচ তুলনামূলক ভাবে একটু বেশি হবে।

আরো পড়ুনঃ বাংলাদেশ থেকে দক্ষিণ কোরিয়া যেতে কত টাকা লাগে

কানাডা জব ভিসার জন্য কি কি কাগজপত্র লাগে

যারা বাংলাদেশ থেকে কানাডা কাজের উদ্দেশ্যে যেতে চাচ্ছেন তাদের অবশ্যই কানাডা জব ভিসার জন্য কি কি কাগজপত্র লাগে সে বিষয়ে জেনে নিতে হবে। কেননা কানাডা জব ভিসার জন্য কি কি কাগজপত্র লাগে সে বিষয়ে ধারণা না থাকলে ভিসা আবেদন করার সময় সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন। এজন্য অনেকেই কানাডা জব ভিসার জন্য কি কি কাগজপত্র লাগে সে বিষয়ে জানার জন্য অনলাইনে অনুসন্ধান করে। তাই সবার সুবিধার্থে কানাডা জব ভিসার জন্য কি কি কাগজপত্র লাগে তা নিচে সংক্ষিপ্ত আকারে উল্লেখ করে দেওয়া হলো।

  • একটি ৬ মাসের মেয়াদের বৈধ পাসপোর্ট লাগবে।
  • যেকোনো কাজের অভিজ্ঞতার সার্টিফিকেট লাগবে।
  • পাসপোর্ট সাইজের দুইটি সাদা ব্যাকগ্রাউন্ড এর ছবি লাগবে।
  • আপনার শিক্ষাগত যোগ্যতা সার্টিফিকেট লাগবে।
  • একটি মেডিকেল সার্টিফিকেট লাগবে।
  • পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট লাগবে।
  • এছাড়াও ব্যাঙ্ক ব্যালেন্সের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র লাগবে।
  • ভিসা আবেদন পে- রশিদের কাগজ লাগবে।

কানাডা জব ভিসা ২০২৪ আবেদন করার নিয়ম

যারা বাংলাদেশ থেকে কানাডা কাজের উদ্দেশ্যে যেতে চাচ্ছেন তাদের অবশ্যই কানাডা জব ভিসার আবেদন করার নিয়ম জেনে নিতে হবে। কারণ কানাডা জব ভিসা আবেদন করার নিয়ম জানা না থাকলে ভিসা আবেদনের সময় সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন। কানাডা জব ভিসার আবেদন করার জন্য সরকারিভাবে চারটি ওয়েবসাইট রয়েছে যেগুলোর মাধ্যমে আপনাকে কানাডা জব ভিসার আবেদন করতে হবে।

কানাডা জব ভিসা আবেদন করার জন্য অন্যতম ওয়েবসাইট হচ্ছে www.jobbank.gc.ca। এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনাকে কানাডা জব ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। তাই সবার সুবিধার্থে কানাডা জব ভিসার জন্য কিভাবে আবেদন করতে হয় তা নিচে সংক্ষিপ্ত আকারে উল্লেখ করে দেওয়া হলো।

  • প্রথমে আপনাকে গুগল অ্যাপএ www.jobbank.gc.ca এই ওয়েবসাইটে ঢুকে একটি একাউন্ট তৈরি করে নিতে হবে।
  • তারপর আপনার সামনে নতুন একটি পেজ খুলে যাবে যেখানে আপনার সামনে job search নামে একটি অপশন আসবে।
  • এরপর আপনি কোন কাজের ওপর আবেদন করতে চান সেটি সিলেক্ট করে নিতে হবে। সিলেক্ট করা হয়ে গেলে সেই কাজের বিস্তারিত তথ্য আপনার সামনে চলে আসবে।
  • এরপর আপনি যে কাজের জন্য আবেদন করতে চাচ্ছেন সেই কাজের সব রকমের তথ্য পরে যদি মনে হয় আবেদন করবেন তাহলে নিচে একটি show how to apply নামের একটি অপশন পাবেন।
  • যেখানে ক্লিক করে আপনার যাবতীয় সব রকমের তথ্য দিয়ে কানাডা জব ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন।

শেষ কথাঃ

আজকের পোস্টে কানাডা জব ভিসা খরচ কত এবং কানাডা জব ভিসার আবেদন কিভাবে করতে হয় সহ আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানানোর চেষ্টা করেছি। আশা করি আপনারা কানাডা জব ভিসা খরচ ও কানাডার জব ভিসার জন্য কিভাবে আবেদন করতে হয় তা জানতে পেরেছেন। যদি আজকের এই আর্টিকেলটি আপনাদের কাছে ভালো লেগে থাকে তাহলে বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করে দিন। এছাড়াও এরকম আরো নতুন নতুন তথ্য পেতে আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকুন।

Leave a Comment