ইতালি কৃষি ভিসা বেতন কত ও সর্বনিম্ন বেতন কত ২০২৪

বিশ্বের অন্যান্য দেশের তুলনায় ইতালিতে সবচেয়ে কৃষি ভিসার চাহিদা বেশি। এছাড়াও অন্যান্য দেশের তুলনায় ইতালিতে সবচেয়ে বেশি চাষাবাদ করার জন্য জায়গা রয়েছে। আর এজন্য ইতালিতে কৃষি কাজের চাহিদা অনুযায়ী শ্রমিকদের সংখ্যা অনেক কম। তাই প্রত্যেক বছরেই ইতালি থেকে কৃষি ভিসায় বিভিন্ন কাজের জন্য শ্রমিক নিয়োগ দিয়ে থাকে। আপনারা অনলাইনের মাধ্যমে ঘরে বসেই খুব সহজে ইতালি কৃষি ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন।

কিন্তু অধিকাংশ লোক ইতালি কৃষি ভিসা বেতন কত টাকা বা ইতালির কৃষি ভিসায় বিভিন্ন কাজে বেতন কিরকম দিয়ে থাকে তা জানে না। তবে ইতালি কৃষি ভিসা বেতন কত তা সম্পূর্ণ আপনার ওপর নির্ভর করে কারণ কাজের ক্যাটাগরি এবং কাজের অভিজ্ঞতা অনুযায়ী বেতন নির্ধারণ করা থাকে। এজন্য আপনাদের অবশ্যই ইতালি কৃষি কাজে যাওয়ার পূর্বে ইতালি কৃষি ভিসা বেতন কত টাকা তা জানতে হবে। তাই আজকের পোস্টে ইতালি কৃষি ভিসা বেতন কত এবং আরো কিছু তথ্য তুলে ধরবো।

ইতালি কৃষি ভিসা বেতন কত

বর্তমানে আপনারা যদি ইতালি কৃষি ভিসায় কাজের জন্য যান তাহলে আপনাদের ঘন্টা প্রতি বেতন দিবে। কারণ অন্যান্য দেশের চেয়ে ইতালির নিয়ম কানুন একটু আলাদা এজন্য ইতালিতে ঘন্টা হিসেবে কাজের বেতন দিয়ে থাকে। যদি আপনারা নতুন অবস্থায় অর্থাৎ কাজের অভিজ্ঞতা ছাড়া ইতালি কৃষি ভিসায় কাজের জন্য যেতে চান তাহলে মাসে ৬০ হাজার থেকে ৭০ হাজার টাকার উপরে ইনকাম করতে পারবেন।

এছাড়াও যদি আপনাদের কৃষি কাজের উপর ভালো অভিজ্ঞতা এবং ওভারটাইম করেন তাহলে মাসে ৮০ হাজার থেকে ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত ইনকাম করতে পারবেন। তবে সম্পূর্ণ কাজের বেতন আপনার উপর নির্ভর করে কারণ ইতালিতে ঘন্টা চুক্তিতে বেতন দিয়ে থাকে আর আপনি যত ঘন্টা কাজ করবেন আপনি তত বেশি টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ইতালিতে কোন কাজের চাহিদা বেশি

যারা ইতালিতে বিভিন্ন কাজের জন্য যেতে চাচ্ছে বা যাওয়ার চিন্তা-ভাবনা করছে তাদের মধ্যে অনেকেই জানার আগ্রহ করে ইতালিতে কোন কাজের চাহিদা বেশি। আবার কিছু সংখ্যক লোক রয়েছে যারা নতুন ইতালিতে যেতে চাচ্ছে কিন্তু তাদের জানা নেই কোন কাজের চাহিদা বেশি এবং বেতন বেশি।

বর্তমানে অন্যান্য দেশের তুলনায় ইতালিতে অনেকগুলো কাজের চাহিদা রয়েছে কিন্তু কাজের চাহিদা অনুযায়ী শ্রমিকের সংখ্যা কম। এজন্য প্রত্যেক বছরে ইতালি থেকে বিভিন্ন কোম্পানি এবং আরও অন্যান্য কাজের জন্য শ্রমিক নিয়োগ দিয়ে থাকে। এবার চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক ইতালি কোন কাজের চাহিদা বেশি।

  • কনস্ট্রাকশন
  • ইলেকট্রিক্যাল
  • মেকানিক্যাল
  • ড্রাইভিং
  • রেস্টুরেন্ট
  • কোম্পানি
  • কৃষি কাজ
  • ক্লিনিং কাজ ইত্যাদি।

ইতালিতে কোন কাজের বেতন কত

ইতালি হচ্ছে একটি উন্নত রাষ্ট্র আর দেশটি আরো উন্নত করার জন্য বিভিন্ন বড় বড় নির্মাণের কাজ করে থাকে তবে যখন কাজের চাহিদা অনুযায়ী শ্রমিকদের সংখ্যা অনেক কম থাকে তখন ইতালি সরকার বিভিন্ন দেশ থেকে কাজের জন্য শ্রমিক নিয়োগ দিয়ে থাকে। সাধারণত আপনার কাজের ক্যাটাগরি এবং কাজের অভিজ্ঞতার ওপর বেতন সম্পূর্ণ নির্ভর করে। যদি ভাবি কোন কাজ করতে পারেন তাহলে বেতন বেশি পাবেন। এবার চলুন ইতালিতে কোন কাজের বেতন কত তা জেনে নেওয়া যাক।

  • ইতালির কনস্ট্রাকশন ভিসার কাজের বেতন ৮০ হাজার থেকে ১ লক্ষ টাকা।
  • ইতালির কোম্পানি ভিসার কাজের বেতন ৪০ হাজার থেকে ৮০ হাজার টাকা।
  • ইতালির ড্রাইভিং ভিসার কাজের বেতন ৮০ হাজার থেকে ১ লক্ষ টাকা।
  • ইতালির রেস্টুরেন্ট ভিসার কাজের বেতন ৭০ হাজার থেকে ৯০ হাজার টাকা।
  • ইতালির ক্লিনার ভিসার কাজের বেতন ৬০ হাজার থেকে ৭০ হাজার টাকা।

আরো পড়ুনঃ ইতালি শ্রমিকদের বেতন কত ও সর্বনিম্ন বেতন কত

ইতালিতে সর্বনিম্ন বেতন কত

বর্তমানে যারা বাংলাদেশ থেকে ইতালিতে বিভিন্ন কাজের জন্য যেতে চাচ্ছে তাদের মধ্যে অধিকাংশ লোক ইতালিতে সর্বনিম্ন বেতন কত তা জানার চেষ্টা করে। সাধারণত ইতালিতে ঘন্টা হিসেবে করে বেতন দিয়ে থাকে আপনি যত ঘন্টা কাজ করতে পারবেন আপনাকে তত ঘন্টার বেতন হিসেব করে দিবে।

এছাড়াও আপনার কাজের অভিজ্ঞতা এবং ওভারটাইম যদি করতে পারেন তাহলে বেশি টাকা আয় করতে পারবেন। সাধারণত ইতালিতে সর্বনিম্ন বেতন ৪০ হাজার থেকে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত। তবে যদি নতুন অবস্থায় এবং কাজের অভিজ্ঞতা যদি না থাকে তাহলে সর্বনিম্ন বেতন ৩৫ হাজার টাকা পেয়ে যাবেন।

ইতালি কৃষি ভিসা আবেদন ফরম

বর্তমানে আপনারা অনলাইনের মাধ্যমে খুব সহজেই ঘরে বসে ইতালি কৃষি ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন। এছাড়াও প্রত্যেক বছরেই ইতালি সরকার বিভিন্ন কাজের জন্য শ্রমিক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে থাকে। আপনারা তখন সরকারিভাবে ইতালি কৃষি ভিসার জন্য আবেদন করতে পারেন। আর সরকারিভাবে ভিসা করে নিতে পারলে খুব অল্প টাকায় ইতালি যেতে পারবেন।

প্রথমে গুগল ক্রোম থেকে https://www.schengenvisainfo.com/italy/visa/ এই অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে আবেদন ফরম সংগ্রহ করে নিতে হবে। এরপর ফরমের খালি ঘরে প্রয়োজনীয় সব তথ্য দিয়ে পূরণ করে সাবমিট করতে হবে। এরপর আবেদন ফরমটি সংগ্রহ করে কোন এজেন্সিতে জমা দিয়ে ভিসা ফি পরিশোধ করলেই আপনার ইতালি কৃষি ভিসা আবেদন কাজ সম্পন্ন হয়ে যাবে।

শেষ কথাঃ

বাংলাদেশ থেকে যারা ইতালি কাজের জন্য যেতে চাচ্ছে কিন্তু তাদের ইতালি কৃষি ভিসা বেতন কত তা জানা থাকেনা। এজন্য আজকের পোস্টে ইতালি কৃষি ভিসা বেতন কত এবং ইতালির আর অন্যান্য ভিসার বেতন সম্পর্কে বিস্তারিত জানিয়েছি। আশা করি আপনারা ইতালি কৃষি ভিসা বেতন কত এবং ইতালির আর অন্যান্য ভিসার বেতন সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। এছাড়াও এইরকম আরো নতুন নতুন কিছু তথ্য পেতে আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকুন।

Leave a Comment