কম্বোডিয়া ভিসার দাম কত ও কাজের বেতন কত ২০২৪

কম্বোডিয়া ভিসার দাম কত,,কম্বোডিয়া হচ্ছে দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার একটি সুন্দরতম দেশ। এই দেশটি উত্তর-পূর্ব থাইল্যান্ড ও উত্তরে লাওস এবং পূর্বে ভিয়েতনাম অবস্থিত। আর বর্তমানে এই দেশের জনসংখ্যা ১৭ মিলিয়নের চেয়েও বেশি। এছাড়াও দেশটি অন্যান্য দেশের চেয়ে অনেক সুন্দর এবং উন্নত। এজন্য বাংলাদেশ থেকে হাজারো মানুষ রয়েছে যারা কম্বোডিয়া কাজের জন্য বা ভ্রমণ করার জন্য যেতে চাচ্ছে।

বর্তমানে কম্বোডিয়া যাওয়ার জন্য কয়েক ধরনের ভিসা পেয়ে যাবেন যেমন টুরিস্ট ভিসা, স্টুডেন্ট ভিসা এবং ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ইত্যাদি। আপনারা এসব ভিসায় কম্বোডিয়া যেতে পারবেন তবে এইসব ভিসা পাওয়ার জন্য আপনাকে ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। তবে কম্বোডিয়া ভিসা আবেদন করার আগে আপনাকে কম্বোডিয়া ভিসার দাম কত তা জানা থাকতে হবে।

কারণ কম্বোডিয়া ভিসার দাম কত তা আপনার ভিসার ক্যাটাগরির ওপর সম্পূর্ণ নির্ভর করে কারণ একেক রকম ভিসার মূল্য একেক রকম ভাবে নির্ধারণ করা থাকে। তবে সময়ের ব্যবধানে কম্বোডিয়া ভিসার দাম মাঝে মাঝে কম বেশি হয়ে থাকে। তাই আজকের পোস্টে কম্বোডিয়া ভিসার দাম কত এবং কম্বোডিয়ার সম্পর্কে আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য আপনাদের মাঝে তুলে ধরবো।

কম্বোডিয়া ভিসার দাম কত

বাংলাদেশের হাজারো মানুষ রয়েছে যারা কম্বোডিয়া কাজের জন্য যেতে যাচ্ছে কিন্তু তাদের কম্বোডিয়া ভিসার দাম কত সে বিষয়ে নূন্যতম ধারণা নেই। কম্বোডিয়া দেশটির ১০০ শতাংশের মধ্যে ৯৭ শতাংশ মানুষ বৌদ্ধ ধর্মের। বর্তমানে কম্বোডিয়ার অন্যান্য সব ধরনের ভিসা প্রসেসিং করতে ৫ হাজার থেকে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত খরচ পড়বে। এছাড়াও আপনি যদি কম্বোডিয়ায় যেকোনো ভিসায় যেতে চান তাহলে বিমান ভাড়া থেকে শুরু করে সব ধরনের খরচ সহ সর্বমোট ৬ লক্ষ থেকে ৮ পর্যন্ত খরচ পড়বে।

কম্বোডিয়া কাজের বেতন

বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে যারা কম্বোডিয়ার কাজের জন্য যেতে চাচ্ছে তাদের মধ্যে অধিকাংশ লোক কম্বোডিয়া কাজের বেতন কত তা জানার আগ্রহ করে। আর আপনারা যারা কম্বোডিয়া কাজের জন্য তাদের অবশ্যই কম্বোডিয়া কাজের বেতন সম্পর্কে জেনে নেওয়া প্রয়োজন। কারণ কম্বোডিয়ায় কাজের ওপর ভিত্তি করে বেতন দেওয়া হয়।

বর্তমানে কম্বোডিয়ায় একজন দক্ষ শ্রমিকের বেতন ৫০০ ডলার থেকে ৬০০ ডলার পর্যন্ত হয়ে থাকে যা বাংলাদেশি টাকায় হিসেব করলে প্রতি মাসে বেতন প্রায় ৮০ হাজার থেকে ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে। তবে আপনাদের যদি কোন কাজের উপর অভিজ্ঞতা বা দক্ষতা না থাকে তাহলে প্রতিমাসে ৪০ হাজার থেকে ৭০ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতন পেয়ে যাবেন।

এছাড়াও কম্বোডিয়ায় কনস্ট্রাকশন কাজের চাহিদা এবং বেতন অনেক বেশি। আপনারা যদি বাংলাদেশ থেকে কম্বোডিয়া যাওয়ার আগে কনস্ট্রাকশন কাজের ওপর দক্ষ হয়ে যেতে পারেন তাহলে প্রতি মাসে ৮০ হাজার থেকে ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত খুব সহজে ইনকাম করে নিতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে আপনার কাজের অভিজ্ঞতা এবং কাজের ক্যাটাগরির ওপর বেতন সম্পূর্ণ নির্ভর করে।

কম্বোডিয়া কোন কোন ভিসা পাওয়া যায়?

বর্তমানে কম্বোডিয়া যাওয়ার জন্য আপনি কয়েক ধরনের ভিসা পেয়ে যাবেন। আর কম্বোডিয়ার যেকোনো ভিসা পেতে চাইলে আপনাকে অবশ্যই ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। সে ক্ষেত্রে আপনারা কম্বোডিয়া যাওয়ার জন্য কয়েকটি ক্যাটাগরির ভিসা খুব সহজেই পেয়ে যাবেন। তবে আপনাকে খুঁজে নিতে হবে কোন এজেন্সিতে কম্বোডিয়া ভিসার জন্য আবেদন করা যায়।

এছাড়াও কম্বোডিয়ার ভিসা পেতে চাইলে সরকারি এজেন্সি অথবা প্রাইভেট এজেন্সিতে যোগাযোগ করুন। কিন্তু আপনারা যদি কোন দালালের মাধ্যমে কম্বোডিয়ার ভিসা তৈরি করতে চান তাহলে পরবর্তীতে সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন। আবার অনেকে কম্বোডিয়া কোন কোন ভিসা পাওয়া যায় তা জানার জন্য অনলাইনে অনুসন্ধান করে।

তাই এখন আপনাদের জানাবো কম্বোডিয়া কোন কোন ভিসা পাওয়া যায়। আর এখন যেগুলো ভিসার নাম উল্লেখ করা হবে সেগুলো ভিসা যেকোনো সময়ে করে নিতে পারবেন। তাছাড়াও আপনি ওয়ার্ক পারমিট ভিসার মধ্যে বিভিন্ন ধরনের কাজের ভিসা সংগ্রহ করে নিতে পারবেন। তাই সবার সুবিধার্থে কম্বোডিয়া কোন কোন ভিসা পাওয়া যায় সেগুলো নিচে উল্লেখ করে দেওয়া হলো।

  • ওয়ার্ক পারমিট ভিসা
  • টুরিস্ট ভিসা
  • স্টুডেন্ট ভিসা
  • স্টিকার ভিসা ইত্যাদি।

কম্বোডিয়া কাজের ভিসা দাম কত

বর্তমানে বাংলাদেশের হাজারো মানুষ রয়েছে যারা কম্বোডিয়া কাজের উদ্দেশ্যে অর্থাৎ ওয়ার্ক পারমিট ভিসায় যেতে চাচ্ছে। কিন্তু তাদের কম্বোডিয়া কাজের ভিসা দাম কত বা কম্বোডিয়া কাজের ভিসা প্রসেসিং করতে কত টাকা খরচ হয় সে বিষয়ে জানা থাকে না। তাই এখন আপনাদের জানাবো কম্বোডিয়া কাজের ভিসা দাম কত বা কত টাকা খরচ হয়।

আপনি যদি কম্বোডিয়া কাজের ভিসা অর্থাৎ কম্বোডিয়া ওয়ার্ক পারমিট ভিসা করতে চান তাহলে আপনার ভিসা প্রসেসিং করতে সর্বনিম্ন ৪ লক্ষ থেকে ৬ লক্ষ টাকা পর্যন্ত খরচ পড়বে। তবে আগে কম্বোডিয়া কাজের ভিসায় ২ লক্ষ থেকে ৩ লক্ষ টাকা হলেই সরাসরি কম্বোডিয়া যাওয়া যেত। বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে কম্বোডিয়া যেতে চাইলে সব ধরনের খরচ সহ সর্বমোট ৬ লক্ষ থেকে ৮ লক্ষ টাকা পর্যন্ত খরচ পড়বে।

আরো পড়ুনঃ কাতার ভিসার দাম কত ও বেতন কত

কম্বোডিয়া টুরিস্ট ভিসা দাম কত

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার মধ্যে একটি উন্নত এবং সুন্দরতম দেশ হচ্ছে কম্বোডিয়া। তবে বাংলাদেশের টাকার চেয়ে কম্বোডিয়া টাকার মান অনেক কম। কিন্তু বাংলাদেশের থেকেও কম্বোডিয়া অর্থনৈতিকভাবে অনেক এগিয়ে রয়েছে। এছারাও দেশটিতে বিভিন্ন ধরনের সুন্দর সুন্দর টুরিস্ট স্পট বা ভ্রমণ করা জায়গা রয়েছে। আর ভ্রমণ করার জন্য কম্বোডিয়া দেশটি অনেকটাই উন্নত। বর্তমানে আপনারা কম্বোডিয়ার টুরিস্ট ভিসা যে কোন সময় করে নিতে পারবেন।

তবে কম্বোডিয়ার টুরিস্ট ভিসা করতে বাংলাদেশের কোন এজেন্সি বা এয়ারলাইন্সের সাথে যোগাযোগ করতে হবে। এছাড়াও আপনি চাইলে মোবাইল বা ল্যাপটপের মাধ্যমে কম্বোডিয়া টুরিস্ট ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে আপনার ভিসা প্রসেসিং করতে ৫ হাজার থেকে ৮ হাজার টাকা পর্যন্ত খরচ পড়বে। বর্তমানে কম্বোডিয়া টুরিস্ট ভিসা করতে চাইলে সব ধরনের খরচ সহ ২ লক্ষ থেকে ৩ লক্ষ টাকা পর্যন্ত খরচ পড়বে।

শেষ কথাঃ

আজকের পোস্টে কম্বোডিয়া ভিসার দাম কত ও অন্যান্য ক্যাটাগরির কম্বোডিয়া ভিসার দাম কত এবং কম্বোডিয়া সম্পর্কে আরো কিছু তথ্য আপনাদের জানানোর চেষ্টা করেছে। আশা করি আপনারা কম্বোডিয়া ভিসার দাম কত এবং আরো অন্যান্য ক্যাটাগরির বেশার দাম সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। যদি আজকের এই আর্টিকেলটি আপনাদের কাছে ভালো লেগে থাকে তাহলে বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করে দিন। এছাড়াও এরকম আরো নতুন কিছু তথ্য পেতে আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকুন।

Leave a Comment